Breaking News
recent

চুলের আগা ফাটা রোধ করুন প্রাকৃতিক উপায়ে

 চুলের আগা ফাটা রোধ করুন প্রাকৃতিক উপায়ে
আগা ফাটা সমস্যায় চুলের আগার অংশ লালচে ও রুক্ষ লাগে, ঝাড়ুশলার মতো দেখায়। খুবই যন্ত্রণাদায়ক সমস্যা হল চুলের আগা ফাটা। শুধু তাই নয় আগা ফাটার কারণে চুল বড় হতে পারে না। এমনকি ঠিক মতো স্টাইলও করা যায় না। তাই চুলের আগা ফাটা রোধ করার উপায় জানা খুব জরুরী। তাহলে আসুনে জনে নেই, কিভাবে বাড়িতে বসেই প্রাকৃতিক উপায়ে চুলের আগা ফাটা দূর করবেন।
মধু : মধুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বকের জন্য যেমন ভালো তেমনই চুলের জন্য কার্যকরী। গোসলের আগে পুরো চুল ভিজিয়ে নিয়ে ভালো করে মধু মাখিয়ে নিন। চুলের গোঁড়া থেকে শুরু করে আগা পর্যন্ত ভালো করে মধু মাখাবেন। একটু স্টিকি হলেও অসুবিধা নেই। ৫-১০ মিনিট পর চুল ধুয়ে ফেলবেন। এতেই বেশ ভালো ফল পাবেন।
তেল ম্যাসাজ করুন : চুলের আগা ফাটা রোধে সব চাইতে কার্যকরী উপায় হচ্ছে তেলের ম্যাসাজ। নারিকেল তেল, অলিভ অয়েল কিংবা বাদাম তেল চুলের জন্য অনেক ভালো একটি উপাদান। এই তিনটি তেল একসাথে মিশিয়ে কিংবা আলাদা একটি তেল চুলে ম্যাসাজ করে নিন। সারারাত রেখে সকালে শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৩/৪ দিন ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন।
জবা ফুলের ব্যবহার : নারিকেল তেল বা অলিভ অয়েলে ২ টি জবা ফুল গরম করে নিবেন। এরপর গরম তেল ছেঁকে ঠাণ্ডা করে বোতলে ভরে রাখবেন। প্রতিবার ব্যবহারের আগে তেল পুনরায় একটু গরম করে নিয়ে চুলের আগা থেকে গোঁড়া পর্যন্ত অনেক ভালো করে তেল মাখিয়ে নিবেন। ২০ মিনিট পর চুল ধুয়ে ফেলবেন। সপ্তাহে অন্তত ২ বার ব্যবহার করলেও চুল সংক্রান্ত সকল সমস্যার সমধান পাবেন। জবা ফুলের ব্যবহার চুলের আগা ফাটা সহ আরও চুল সংক্রান্ত সমস্যা। যেমন খুশকি, চুল পড়া ইত্যাদির সমাধান দেয়।
ডিমের হেয়ার মাস্ক : ১ টি ডিমের কুসুম, ৩ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল এবং ১ টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে চুলে লাগান। একটি শাওয়ার ক্যাপ কিংবা কাপড় দিয়ে চুল ঢেকে রাখুন ৩০ মিনিট। এরপর মৃদু শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২/৩ দিন ব্যবহার করুন এই মাস্ক। চুলে আগা ফাটা দূর হবে।
MD. Rasel Rana

MD. Rasel Rana

Blogger দ্বারা পরিচালিত.