Breaking News
recent

লজ্জাশীল ছেলেদের জন্য ভালোবাসার কিছু কথা ও টিপস

Image result for valobashar picture
লজ্জা নারীর ভূষণ হলেও পৃথিবীতে লাজুক বা মুখচোরা ছেলে কিন্তু একেবারেই কম নেই। বরং অল্প বয়সে মেয়েদের সাথে কথা বলতে বা মিশতে গেলে বেশিরভাগ ছেলেই খুব নার্ভাস অনুভব করেন। চোখে চোখ রেখে কথা বলতে না পারা, এলোমেলো কথা বলে ফেলা, হাত পা কাঁপা, ঘন ঘন ঘামতে থাকা ইত্যাদি অনেক রকম উপসর্গই দেখা দেয় অনেকের মাঝে।
ফলে একজন প্রেমিকা খুঁজে পাওয়া যেন রীতিমত কঠিন একটি কাজে পরিণত হয়। অনেকে তো মেয়ে বন্ধুও তৈরি করতে পারেন না। এমনই লাজুক ও নার্ভাস ধরণের ছেলেদের জন্য প্রেম করার ৭টি কার্যকরী টিপস!
১) মেয়েদের সাথে বাস্তবে কথা বলতে গেলে খুবই নার্ভাস লাগে? বুঝে পান না যে কী কথা বলবেন আর কীভাবে বলবেন? বাস্তবে কথা বলার দরকার নেই, বন্ধুত্ব পাতিয়ে ফেলুন ইন্টারনেটে।
গল্প করুন, আড্ডা দিন, যা যা বলতে ইচ্ছা করে বলুন। এটা ইন্টারনেট, তিনি আপনাকে খেয়ে ফেলবেন না। চ্যাট থেকে আস্তে আস্তে ভিডিও চ্যাটে যান, এতে জড়তা কাটবে। তারপর না হয় মুখোমুখি দেখা করুন।
২) নিজের চেহারা ও লুকের দিকে বাড়তি মনযোগ দিন। নিজেকে পোশাক-আশাক ও চলন বলনে স্মার্ট করে তুলুন। যত স্মার্ট হয়ে উঠবেন, লাজুক ও নার্ভাস ভাবটি তত কমে যাবে।
৩) আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজে নিজে কথা বলে অভ্যাস করুন। ধরে নেবেন যে সামনে একজন নারী আছেন কিংবা আপনার পছন্দের মেয়েটি। তাঁকে কল্পনা করে বারবার রিহারসেল করুন যে কী বলবেন আর কীভাবে বলবেন।
৪) মেয়েদের সামনে গেলে মাথা এলোমেলো হয়ে যায়? কিছুই ঠিকমত বলতে পারেন না? মনের কথা সুন্দর করে বলার জন্য আশ্রয় নিন চিঠি বা ই-মেইলের।
৫) ডেটিং করতে গেলে খুবই নার্ভাস লাগে? যেহেতু আপনি মুখচোরা ধরণের, সেহেতু এমন জায়গায় ডেটিং করতে যান যেখানে মানুষ কম। একটা ছিমছাম রেস্তরাঁয় মুখোমুখি দুজনে বসলে বেশ লাগবে।
৬) তার সামনে গেলেই নার্ভাস হয়ে যান, জড়সড় হয়ে যান, কথা খুঁজে পান না বলার মতন? ডেটিং করতে গিয়ে তাঁকে বলতে দিন। মেয়েরা এমনি ই কথা বলতে বেশ ভালোবাসে। বলতে না পারলে একজন ভালো স্রতা হয়ে উঠুন। তাঁকে তাঁর জীবনের ব্যাপারে প্রশ্ন করতে পারেন। তাঁর কথার জের ধরে নানা রকম প্রশংসা সূচক কথাও বলতে পারেন।
৭) দেখা হলে বুঝে পান না কীভাবে কথা শুরু করবেন? খুব সাধারণ একটি কথা বলুন- “তোমাকে আজ খুব সুন্দর লাগছে বা এই পোশাকটি তোমাকে খুব মানিয়েছে”। এই ধরণের প্রশংসায় যে কোন নারীরই মন দ্রবীভূত হয়ে যাবে। তাঁকে খুশি করার জন্য আপনাকে খুবই বেশি চেষ্টা করতে হবে না।
MD. Rasel Rana

MD. Rasel Rana

Blogger দ্বারা পরিচালিত.